May 20, 2024, 12:43 am
শিরোনাম
মগের মুল্লুকে পরিণত হয়েছে দেশটা: বিএনপি মহাসচিব ‘চ্যারিটি ফান্ড কেইউ’ এর আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু পবিপ্রবিতে বিশ্বকবির ১৬৩ তম জন্মজয়ন্তী উদযাপন একজন আইনজীবীর প্রথম দায়িত্ব হচ্ছে মানুষের অধিকার রক্ষার জন্য কাজ করা : অ্যাটর্নি জেনারেল জাবিতে ছাত্রলীগ সম্পাদকের বান্ধবীকে নিয়োগ দিতে তোড়জোড় যুক্তিতর্ক দেখে সবাই ভাবতো ভালো প্রতিষ্ঠান থেকে এসেছি : শাহ মনজুরুল হক ইবিতে মুজিব মুর‍্যালে এ্যাটর্নি জেনারেলের শ্রদ্ধা নিবেদন  বাংলাদেশ পুলিশ পেশাদারিত্বের সাথে জনগণের নিরাপত্তা দিয়ে আসছে : আইজিপি ইবি অধ্যাপক ড. ইকবাল হোসাইনের আত্মার মাগফিরাতে দোয়া মাহফিল কানাডার বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রসংসদের সভাপতি হলেন জাবির সাবেক শিক্ষার্থী 

বাংলাদেশের লকডাউন কল্যাণের চেয়ে অকল্যাণ বেশী

ড. ফয়জুল হক
  • প্রকাশের সময় : Monday, June 28, 2021,
  • 1 বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

পৃথিবী ব্যাপী মহামারি করোনা ভাইরাস এর কারনে সমগ্র দেশ বিদেশ আজ প্রায় লন্ডভন্ড। দিন দিন মানুষের স্বাস্থ্য যেমন ঝুকিতে রয়েছে তেমনি ব্যাবসা বানিজ্যেও রয়েছে চরম অস্থিরতা।সারা পৃথিবীর সকল প্রভাবশালী কোম্পানীগুলো বন্ধ রয়েছে দীর্ঘ ২ বছরের কাছাকাছি সময়ে।পরিবর্তনশীল পৃথিবীতে গত ১০০ বছরে এরকম মহা দূর্যোগ কেউ কখনোই দেখতে পায়নি।

একযোগে পৃথিবীর সকল বর্ডার বন্ধ। পৃথিবীর সকল বার, ক্লাব, আমদ প্রমোদের সকল ব্যাবস্থা হাতের কাছে থাকতেও কেউ তা উপভোগ করতে পারছেনা!! কিন্তু কেন? করোনা সকলের চোখে আঙ্গুল দিয়ে পৃথিবী বাসীদেরকে রেস্টে পাঠিয়েছেন। রেস্টে পাঠানোর পূর্বে কোন নোটিশ পাঠায়নি করোনা। আর পাঠালেওতো আমাদের না দেখা বিষয়ের প্রতি বিশ্বাস থাকতোনা। আমরাই বলতাম যে,করোনা আবার কি?? যেমনটা আমাদের দেশের শাসকগোষ্ঠীর অনেক মন্ত্রী, এমপি আমলারা মন্তব্য করেছিলেন!! তারা এও বলেছিলেন করোনার চাইতে আমরা বেশী শক্তিশালী। কিন্তু আজ তাঁরাই ৪/৫ পাল্লার মাস্ক পরিধান করছেন এবং মাঝে মাঝে জনগনকে অভয় দিচ্ছেন!!

যা হোক,আসল কথায় আসা যাক, করোনা থেকে পরিত্রান পাওয়ার কোন সঠিক পদ্ধতি পৃথিবীতে কেউ এখনো পুর্নাঙ্গ ভাবে বের করতে পারেনি, পারেনি পুরোপুরি নিয়ন্ত্রনও করতে। তাই সমাধান খুঁজে না পাওয়া পর্যন্ত প্রাথমিক ভাবে কয়েকটি কাজ স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা দিয়েছেন, যেমন- হ্যান্ড স্যানিটাইজ করা, মাস্ক পরিধান করা, নিরাপদ দুরত্বে থাকা ও আক্রান্ত হলে কোয়ারেন্টাইনে থাকা ও প্রয়োজন মোতাবেক লকডাউন এর ব্যাবস্থা করা। পৃথিবীর বহু দেশ পর্যায়েক্রমে উপরে উল্লেখিত সকল বিষয়ের প্রতি কঠোরতা আরোপ করেন এবং অনেক দেশ ভালো ফলও পাচ্ছেন।
আমাদের দেশের মানুষের কাছে উপরে উল্লেখিত সকল পদ্ধতিই একপ্রকার নতুন প্রচলন, জনগন যেমনি অপারগতা প্রকাশ করছে সবকিছু পালন করতে,তেমনি সরকারের রয়েছে চরম ব্যার্থতা করোনা কন্ট্রোল করতে। সরকারের ব্যার্থতার মধ্যে অনেকগুলো কারনও রয়েছে, অনেক দেশের অবৈধ শাসকরা করোনাকে রহমত হিসেবে গ্রহন করেছে, কারন তারা করোনাকে ঢাল হিসেবে ব্যাবহার করে রাজনৈতিক কার্যক্রম বন্ধ রেখে ক্ষমতা পাকাপোক্ত করতে ব্যাস্ত রয়েছে। বাংলাদেশও তার মধ্যে অন্যতম। বাংলাদেশের জনগন কখনোই সরকার নির্ভর নয়, বেশীরভাগ মানুষ নিজ কাজ কর্মের মাধ্যমে সংসার পরিচালনা করে থাকে। দেশের মানুষ স্বাস্থ্য ঝুকির চাইতেও খাদ্য ঝুকির মধ্যে দিনাতিপাত করছেন। একবেলা কাজ করতে না পারলেই তাদের সংসারে তালা ঝুলছে!! দুর্নীতিবাজদের কথা ভিন্ন।

আমাদের দেশের একটি মন্ত্রনালয় এর সাথে অন্য মন্ত্রনালয়ের কাজের কোন সঠিক সমন্নয় নেই।এখন পর্যন্ত যতোগুলো লকডাউন হয়েছে একটিতেও সঠিক ভাবে সফলতা দেখাতে পারেনি সরকার! দেখা গিয়েছে পরিকল্পনাহীন হঠাৎ করে লকডাউন ঘোষনা করে জনগনকে বরং বিভ্রান্তের মধ্যেই রেখেছে সব সময়। লকডাউন ঘোষনার আগে সঠিক কোন এজেন্ডা নিয়ে জনগনকে বুঝানো হয়নি। লকডাউনের প্রয়োজন সম্পর্কেও জনগনকে কোন শিক্ষা দিতে পারেনি সরকার। দিবে বা কেমন করে? সরকার নিজেই যখন করোনা নিজের স্বার্থে ব্যবহার করে তখনতো আর জনগনও সরকারের নানাধর্মী ভাঁওতাবাজিতে পরে আজ তারা লকডাউনের সিরিয়াসনেস ভুলতে বসেছে।

সরকার করোনার মধ্যে দেশে নির্বাচন চালু রাখছে, আবার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দিয়েছে, করোনাতেই ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে ৫০ তম স্বাধীনতা দিবস উদযাপন করেছে, আবার লকডাউন দিয়ে সারা দেশের আলেম ওলামাদের গ্রেফতার করে চলেছে। রিক্সা শ্রমিকদের রিক্সা বুলড্রেজার দিয়ে পিষে দিচ্ছে। বিরোধীদের আন্দোলন দমাতে পুলিশবাহিনী কাজ করে চলেছে যা করোনার মধ্যেই চলমান। দূর্নীতিবাজরা করোনার মধ্যেও দুর্নীতি চালিয়ে যাচ্ছে। যে কারনে সরকারের করোনা ক্যাম্পিংও কেউ বিশ্বাস করতে পারছেন না।

আমাদের মতো মধ্যবিত্ত মানুষের দেশে যে কাজটি সকলের জন্য সরকারের করানো উচিত ছিলো তা হলো স্বাস্থ্য সচেতনতা বৃদ্ধি করা, গণসচেতনতামূলক প্রচার করে স্বাস্থ্যবিধি মানতে বাঁধ্য করা। কিছু কিছু সময় লকডাউন দিলেও তার জন্য জনগনকে প্রস্তুত করা ও তাদের খাদ্যের ব্যাবস্থা নিশ্চিত করা। কিন্তু আজ তার সম্পূর্ন বিপরীতমুখি কাজ বিদ্যমান। যে কারনে লকডাউনে জনগনের সম্পৃক্ততা নেই।জনগন উপেক্ষিত লকডাউন কোন অবস্থাতেই ফলপ্রসূ হবেনা।সরকারের নীতিহীন সিদ্ধান্তের কারনেই আজ জনগন লকডাউন পেলেই ঈদের ছুটির মতো শহর থেকে গ্রামে যাচ্ছে।
তাই বাংলাদেশের লকডাউনে কল্যাণের চাইতে অকল্যাণই বেশী হচ্ছে বলে মনে করি।

 

লেখকঃ
ড. ফয়জুল হক
পোস্ট ডক্টরাল ফেলো, আন্তর্জাতিক ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয় মালয়েশিয়া।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© প্রকাশকঃ ট্রাস্ট মিডিয়া হাউস © 2020-2023