May 20, 2024, 5:56 pm
শিরোনাম
মগের মুল্লুকে পরিণত হয়েছে দেশটা: বিএনপি মহাসচিব ‘চ্যারিটি ফান্ড কেইউ’ এর আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু পবিপ্রবিতে বিশ্বকবির ১৬৩ তম জন্মজয়ন্তী উদযাপন একজন আইনজীবীর প্রথম দায়িত্ব হচ্ছে মানুষের অধিকার রক্ষার জন্য কাজ করা : অ্যাটর্নি জেনারেল জাবিতে ছাত্রলীগ সম্পাদকের বান্ধবীকে নিয়োগ দিতে তোড়জোড় যুক্তিতর্ক দেখে সবাই ভাবতো ভালো প্রতিষ্ঠান থেকে এসেছি : শাহ মনজুরুল হক ইবিতে মুজিব মুর‍্যালে এ্যাটর্নি জেনারেলের শ্রদ্ধা নিবেদন  বাংলাদেশ পুলিশ পেশাদারিত্বের সাথে জনগণের নিরাপত্তা দিয়ে আসছে : আইজিপি ইবি অধ্যাপক ড. ইকবাল হোসাইনের আত্মার মাগফিরাতে দোয়া মাহফিল কানাডার বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রসংসদের সভাপতি হলেন জাবির সাবেক শিক্ষার্থী 

অব্যাহতি পেলেন একই বিভাগের দুই শিক্ষিকা

সুপর্না রহমান// গবি প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : Friday, June 25, 2021,
  • 1 বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

বিভিন্ন অনিয়ম ও বিভাগের DAAD প্রকল্পের অর্থ আত্মসাৎসহ নানা অভিযোগের প্রেক্ষিতে সাভারের গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের (গবি) মেডিকেল ফিজিক্স অ্যান্ড বায়োমেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দুই শিক্ষিকাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। তাঁরা হলেন ওই বিভাগের প্রাক্তন বিভাগীয় প্রধান ড. হাসিন অনুপমা আজহারী ও সিনিয়র প্রভাষক (খন্ডকালীন) ফারজানা ফেরদৌস।

২১ ও ২৩ জুন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ড. এস. তাসাদ্দেক আহমেদ স্বাক্ষরিত দুটি পৃথক বিজ্ঞপ্তিতে অব্যাহতির ব্যাপারে জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘তদন্ত কমিটির রিপোর্টের ভিত্তিতে গণ বিশ্ববিদ্যালয় ট্রাস্টি বোর্ডের সভায় বিভাগের নানা অনিয়মের জন্য দু:খ প্রকাশ এবং ‘আলো ভূবন ও SCMPCR’ এর সকল কার্যক্রম থেকেঃ বেরিয়ে আসার শর্তে সাত দিনের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগদানের জন্য শেষ সু্যোগ দেওয়া হয়।’ তবে নির্দিষ্ট সময় পরে স্বেচ্ছায় অব্যাহতি চেয়েছেন। যা কর্তৃপক্ষের নিকট যথাযথ ও গ্রহণযোগ্য মনে হয়নি।

জানা যায়, বিভাগের বিভিন্ন অনিয়ম এবং বিভাগের প্রকল্পের অর্থ বিধিবহির্ভূতভাবে খরচের অভিযোগ আসে সংশ্লিষ্ট শিক্ষিকাদের বিরুদ্ধে। এই প্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ১০ফেব্রুয়ারি একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে।

তদন্ত কমিটি ফারজানা ফেরদৌসকে উপস্থিতির অনুরোধ জানালেও উপস্থিত হননি এবং কোনো সহায়তা করেননি। তিনি বিভাগের প্রকল্পের বিষয়ে ব্যাংকের হিসাব-নিকাশ পরিচালনার সাথে যুক্ত ছিলেন।

পরবর্তীতে তদন্ত কমিটির সুপারিশ ও বিশ্ববিদ্যালয় ট্রাস্টি বোর্ডের গত ৭জুনের বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিভাগের অধ্যাপক এবং সিনিয়র প্রভাষক (খন্ডকালীন) পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

এছাড়া উভয়কেই প্রকল্প সংশ্লিষ্ট কাগজপত্র, ব্যাংক হিসাবসহ সকল তথ্য বর্তমান বিভাগীয় প্রধানের নিকট হস্তান্তরের জন্য বলা হয়েছে। কর্তৃপক্ষের অনুমোদনে আদেশটি ২৯ জুন থেকে কার্যকর হবে।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© প্রকাশকঃ ট্রাস্ট মিডিয়া হাউস © 2020-2023