June 13, 2024, 12:41 pm

যুক্তিতর্ক দেখে সবাই ভাবতো ভালো প্রতিষ্ঠান থেকে এসেছি : শাহ মনজুরুল হক

ইবি প্রতিনিধি :
  • প্রকাশের সময় : Saturday, May 18, 2024,
  • 42 বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক শাহ মনজুরুল হক বলেন, আমি যখন আইনজীবী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত তখন আমার চলাফেরা, যুক্তিতর্ক দেখে কেউ বুঝতো না আমি ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র। সবাই মনে করতো আমি হয়তো অনেক বড় কোনো প্রতিষ্ঠান থেকে এসেছি।

শনিবার (১৮ মে) ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) কর্মকর্তা সমিতি আয়োজিত গুণীজন সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। এই অনুষ্ঠানে তিনি সংবর্ধিত অতিথি ছিলেন।

তিনি আরও বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচিতি একটা মানুষের প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে শেষ জীবন পর্যন্ত থাকবে। তাই নিজ প্রতিষ্ঠানকে মেনে প্রাণে ধারন করা একটা মানুষে নৈতিক দায়িত্ব ও কর্তব্য। বিশ্ববিদ্যালয়ের কারনেই মানুষ বড় পরিসরে পরিচিতি লাভ করতে পারে। আমরা যারা বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাম্বাসেডর হিসেবে কাজ করি আমাদের উচিত বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম, গৌরব ও সার্বিক পরিস্থিতি সবার সামনে সুন্দরভাবে উপস্থাপন করা। আমরা যখন বিশ্ববিদ্যালয়কে এভাবে উপস্থাপন করতে পারবো তখন বিশ্ববিদ্যালয়ের ঐতিহ্য, গৌরব, কর্মক্ষমতা, কর্মদক্ষতা, সুনাম সবজায়গায় ছড়িয়ে যাবে।

এসময় কর্মকর্তা সমিতির সভাপতি দেওয়ান টিপু সুলতানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ. এম আমিন উদ্দিন। অনুষ্ঠানের প্রধান আলোচক ছিলেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আব্দুস সালাম। এসময় বিশেষ অতিথি ছিলেন উপ উপাচার্য অধ্যাপক ড. মাহবুবুর রহমান, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া, ডেপুটি এ্যাটর্নি জেনারেল এ্যাড. কে. এম মাসুদ রুমী এবং এ্যাড. বি. এম. আব্দুর রাফেল। অনুষ্ঠানে গেস্ট অব অনার হিসেবে ছিলেন সাবেক এমপি ও সিন্ডিকেট সদস্য অধ্যক্ষ ড. শাহজাহান আলম সাজু।

এছাড়াও অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সুপ্রীম কোর্ট বার এ্যাসোসিয়েশনের কোষাধ্যক্ষ মোহাম্মদ নুরুল হুদা আনছারী। এসময় স্মারক বক্তব্য প্রদান করেন ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এইচ এম আলী হাসান। এছাড়া স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপ রেজিস্ট্রার (শিক্ষা) এ.টি.এম এমদাদুল আলম। এছাড়াও বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকবৃন্দ ও কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক ওয়ালিদ হাসান মুকুট।

এর আগে বেলা সোয়া ১১ টায় ক্যাম্পাসে এসেই প্রধান ফটক সংলগ্ন মৃত্যুঞ্জয়ী মুজিব মুর‍্যালে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তারা। পরে এ্যটর্নি জেনারেলকে গার্ড অব অনার প্রদান করেন পুলিশ প্রশাসন। এসময় সকলের উপস্থিতিতে ডায়না চত্বরে ৩টি বৃক্ষরোপণ করা হয়। বৃক্ষরোপণ শেষে মিলনায়তনে এসে আলোচনাসভায় মিলিত হয় তারা। এসময় অতিথিদের ফুল দিয়ে বরণ করা হয়। পরে ক্রেষ্ট প্রদান ও উত্তরীয় পরিয়ে দেওয়া হয়।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© প্রকাশকঃ ট্রাস্ট মিডিয়া হাউস © 2020-2023