June 13, 2024, 2:56 pm

হাটহাজারী মাদরাসার মহাপরিচালক আল্লামা ইয়াহইয়া আর নেই

অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : Saturday, June 3, 2023,
  • 3 বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের সিনিয়র নায়েবে আমীর, দারুল উলুম মঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদরাসার মহাপরিচালক আল্লামা শাহ মুহাম্মদ ইয়াহইয়া ইন্তেকাল করেছেন। ইন্নালিল্লাহে ওয়াইন্না ইলাইহি রাজিউন। রাত ২টায় রাজধানীর ইউনাইটেড হসপিটালের আইসিইউতে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তার ইন্তেকালের খবরে তাৎক্ষণিকভাবে সারাদেশের উলামায়ে কেরাম, মাদরাসাছাত্র ও তৌহিদী জনতার মাঝে গভীর শোকের ছায়া নেমে আসে।

গত বৃহস্পতিবার সকাল থেকে তিনি অসুস্থতা অনুভব করেন, বেলা বাড়ার সাথে সাথে অসুস্থতা আরো বেড়ে গেলে ওই দিন দুপুরের দিকে আল্লামা শাহ মুহাম্মদ ইয়াহইয়াকে হাটহাজারী মাদরাসা থেকে চট্টগ্রাম নগর সিএসসিআর প্রাইভেট হাসপাতালে এইচডিইউতে ভর্তি করানো হয়। সেখানে অবস্থার আরো অবনতি হলে গতকাল শুক্রবার ঢাকা ইউনাইটেড হসপিটালে ভর্তি করা হয়। সকল চেষ্টার অবসান ঘটিয়ে রাত ২টায় তিনি ইন্তেকাল করেন।

উল্লেখ্য, গত দু’মাস ধরে আল্লামা শাহ মুহাম্মদ ইয়াহইয়া শরীরিকভাবে অসুস্থ ছিলেন। গত ১৬ মে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ব্যাংককে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। সেখান থেকে চিকিৎসা শেষে তিনি ২৫ মে তিনি দেশে ফিরে আসেন।
এদিকে আল্লামা শাহ ইয়াহইয়ার ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন হেফাজতে ইসলামের আমীর আল্লামা মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী।

শোক বিবৃতিতে তিনি দেশবাসীর উদ্দেশে বলেন, উম্মুল মাদারিসখ্যাত জামিয়া আহলিয়া দারুল উলূম মুঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদরাসার মহাপরিচালক ও হেফাজতে ইসলামের সিনিয়র নায়েবে আমীর আল্লামা মুহাম্মদ ইয়াহইয়া আলেমদের যোগ্য অভিভাবক ছিলেন। এমন একজন যোগ্য অভিভাবককে আজ আমরা হারিয়ে ফেলেছি। দেশবাসী ও কওমী অঙ্গনে এ আলেমেদ্বীনের শূন্যতা আর পূরণ হওয়ার নয়। আল্লামা মুহাম্মদ ইয়াহইয়া একজন হক্কানী ও তাকওয়াবান আলেম ছিলেন। তিনি দীর্ঘ তিন যুগ ধরে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় দ্বীনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান উম্মুল মাদারিস হাটহাজারী মাদরাসায় শিক্ষকতাসহ বহুমুখী দ্বীনি খেদমত আঞ্জাম দিয়ে আসছিলেন। গত প্রায় দেড় বছর ধরে অত্যন্ত দক্ষতার সাথে হাটহাজারী মাদরাসা পরিচালনা করে আসছিলেন। একই সাথে তিনি ঈমান-আক্বিদাভিত্তিক অরাজনৈতিক সংগঠন হেফাজতে ইসলাম বংলাদেশের সিনিয়র নায়েবে আমীর, বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া (বেফাক)-এর সহসভাপতি ও খতমে নবুওয়াত আন্দোলনের সভাপতির দায়িত্বে পালন করে আসছিলেন। তিনি খুব অল্প সময়ে বিভিন্ন স্তরের নেতৃত্বে নিষ্ঠা ও দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন।

দেশবাসীর কাছে আল্লামা মুহাম্মদ ইয়াহইয়া র.-এর জন্য হেফাজত আমীর মাগফিরাত কামনা করেন।
আল্লামা শাহ মুহাম্মদ ইয়াহইয়া রহ.-এর সংক্ষিপ্ত জীবনী
উম্মুল মাদারিসখ্যাত জামিয়া আহলিয়া দারুল উলূম মুঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদরাসার মহাপরিচালক ও হেফাজতে ইসলামের সিনিয়র নায়েবে আমীর আল্লামা মুহাম্মদ ইয়াহইয়া ১৯৪৭ সালের ১৫ জুন চট্টগ্রাম জেলার হাটহাজারী উপজেলার অন্তর্গত আলমপুর গ্রামে কাজি সালেহ আহমদের বাড়ির এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। পিতা কাজি আব্দুল আজিজ বিন চাঁদ মিয়া বিন আসমত আলি জমিদার বিন কাজি মুহাম্মদ সালেহ এবং মাতা আঞ্জুমান খাতুন।

শিক্ষা জীবন
১০ বছর বয়সে হাটহাজারী মাদরাসার ফোরকানিয়া মক্তব বিভাগের শিক্ষক কারী নুরুল হক আলমপুরী রহ.-এর কাছে মাদরাসা নেসাবের প্রাথমিক পড়াশোনা শেষ করে ধারাবাহিকভাবে পড়াশোনা অব্যাহত রেখে হাটহাজারী মাদরাসা থেকেই ১৯৭৩ সাথে দাওরায়ে হাদিস (মাস্টার্স) সম্পন্ন করেন।

তিনি হাটহাজারী মাদরাসায় লেখাপড়ার দীর্ঘ সময়ে মুফতিয়ে আযম ফয়জুল্লাহ রহ., খতীবে আযম আল্লামা সিদ্দিক আহমদ রহ., শায়খুল আদব আল্লামা নজির আহমদ আনোয়ারী রহ., আল্লামা আবুল হাসান রহ., শায়খুল হাদীস আল্লামা আব্দুল আজীজ রহ., আল্লামা আব্দুল কাইয়ুম রহ., মুফতি আহমদুল্লাহ রহ., মাওলানা হামেদ রহ., আল্লামা নাদেরুজ্জাম রহ., মাওলানা ইব্রাহীম আলমপুরী রহ. ও শায়খুল ইসলাম আল্লামা শাহ আহমদ শফী রহ. আল্লামা আতিক জমিরী রহ., মাওলানা খালেদ হাবীবী রহ., মাওলানা সিদ্দিক আহমদ হাবীবী রাহ. হাফেজ মাওলানা ওমর হাবীবী রহ. ও মাওলানা ক্বারী ইয়াহইয়া রহ. প্রমুখের সান্যিধ্য লাভ করেন।

কর্মজীবন
১৯৭৩ সাথে শিক্ষাজীবন সমাপ্ত করার পর হাটহাজারীর উপজেলার গড়দুয়ারা মাদরাসায় শিক্ষকতার মাধ্যমে তিনি কর্মজীবন শুরু করেন। তিনি গড়দুয়ারা মাদরাসায় ৯ বছর, মাদার্শা মাদরাসায় তিন বছর, ঈছাপুর ফয়জিয়া তাজবিদুল কুরআন মাদরাসায় ছয় বছর শিক্ষকতা করেন। এরপর তিনি ১৯৯১ সালে দারুল উলূম মঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদরাসায় যোগদান করেন।

শিক্ষকতা জীবনের শুরু থেকে আজ অবধি তার মেধা, যোগ্যতা, অভিজ্ঞতা দিয়ে উর্দুখানা থেকে দাওরায়ে হাদিস ও তাফসির জামাত পর্যন্ত মানতেক, উলূমে হাদিস, উলূমে ফিক্বহ, উলূমে তাফসীর, উলূমে ফারায়েযসহ পর্যায়ক্রমে প্রায় সকল কিতাবের তিনি অধ্যাপনা করেন। উলূমে তাফসির, উলূমে হাদিস, উলূমে মানতেক, ও উলূমে ফারায়েযের উপর আল্লামা ইয়াহইয়ার দক্ষতা ছিল সর্বজন বিদিত।

হাটহাজারী মাদরাসার মহাপরিচালকের দায়িত্ব
২০২১ সালের ৮ সেপ্টেম্বর দারুল উলূম হাটহাজারী মাদরাসার এক শূরা বৈঠকে মুফতিয়ে আযম আল্লামা আব্দুচ্ছালাম চাটগামীকে মাদরাসার মহাপরিচালক পদে নিয়োগের সিদ্ধান্ত নেন। শূরা সিদ্ধান্তের এ ঘোষণার কিছুক্ষণের মধ্যেই আব্দুচ্ছালাম চাটগামী রহ. ইন্তিকাল করেন। পরে ওই একই মজলিসে শূরার বৈঠকে আল্লামা ইয়াহইয়াকে আল জামিয়াতুল আহলিয়া দারুল উলুম মুঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদরাসার মুহতামিম বা মহাপরিচালক নিয়োগ দেয়া হয়। সেই থেকে ইন্তিকালের আগ পর্যন্ত তিনি অত্যন্ত সুচারুভাবে মহাপরিচালকের দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।
এর আগে ২০২০ সালের ২০ সেপ্টেম্বর হাটহাজারী মাদরাসায় অনুষ্ঠিত মজলিসে শূরার বৈঠকে আল্লামা মুহাম্মদ ইয়াহিয়াকে তিন সদস্যবিশিষ্ট মজলিসে ইদারি (মাদরাসা পরিচালনা কমিটি)-এর সদস্য হিসেবে নির্বাচিত করা হয়।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© প্রকাশকঃ ট্রাস্ট মিডিয়া হাউস © 2020-2023