May 19, 2024, 11:08 pm
শিরোনাম
মগের মুল্লুকে পরিণত হয়েছে দেশটা: বিএনপি মহাসচিব ‘চ্যারিটি ফান্ড কেইউ’ এর আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু পবিপ্রবিতে বিশ্বকবির ১৬৩ তম জন্মজয়ন্তী উদযাপন একজন আইনজীবীর প্রথম দায়িত্ব হচ্ছে মানুষের অধিকার রক্ষার জন্য কাজ করা : অ্যাটর্নি জেনারেল জাবিতে ছাত্রলীগ সম্পাদকের বান্ধবীকে নিয়োগ দিতে তোড়জোড় যুক্তিতর্ক দেখে সবাই ভাবতো ভালো প্রতিষ্ঠান থেকে এসেছি : শাহ মনজুরুল হক ইবিতে মুজিব মুর‍্যালে এ্যাটর্নি জেনারেলের শ্রদ্ধা নিবেদন  বাংলাদেশ পুলিশ পেশাদারিত্বের সাথে জনগণের নিরাপত্তা দিয়ে আসছে : আইজিপি ইবি অধ্যাপক ড. ইকবাল হোসাইনের আত্মার মাগফিরাতে দোয়া মাহফিল কানাডার বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রসংসদের সভাপতি হলেন জাবির সাবেক শিক্ষার্থী 

চিকিৎসাধীন থেকেও মামলার আসামি চবি শিক্ষার্থী

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:
  • প্রকাশের সময় : Thursday, April 6, 2023,
  • 1 বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়( চবি) আরবি বিভাগের ৫১ তম ব্যাচের শিক্ষার্থী মো: রফিকুল সরকার ও তার পরিবারের অন্য ৩ সদস্য সহ মোট চারজন কে আসামী করে হয়রানী মূলক মিথ্যা মামলা দায়েরের অভিযোগ উঠেছে মো:আলমাছ সরকারের বিরুদ্ধে। মামলা দিয়ে ক্ষান্ত হননি দেওয়া হয়েছে কঠিন কঠিন ধারা। মামলায় উল্লেখিত সাক্ষীগণের সাথে কথা বলে জানা যায় এই কঠিন কঠিন ধারা ঘটে যাওয়া ঘটনার সাথে কোনো সম্পৃক্ততা নেই, এই ধারাগুলি প্রমাণ করে এটি একটি সাজানো ষড়যন্ত্র। মূলত এটি ছিল নিছক একটি সামাজিক ও পারিবারিক সমস্যা। গত ১৬ই মার্চ শরীয়তপুর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সখিপুর আমলী আদালতে মামলাটি দায়ের করেন।
অভিযোগে উল্লেখ করা হয়,বিবাদীগন মো:রফিকুল ও তার পরিবারের সাথে বাদীর পূর্ব থেকেই জমিজমা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছিলো। ঘটনার দিন ০৫ই মার্চ রোজ রবিবার আনন্দ বাজার মসজিদের সামনে মাগরিবের নামাজের পর ২নং আসামী সাক্ষীকে কিল ঘুষি মারে এবং ২নং আসামীর হুকুম নিয়ে ১নং আসামী লোহার রড দিয়ে বারি মারিলে ডান হাতের উপর কাধে হাড ভাঙ্গা জখম হয়।৩ ও ৪ নং আসামী এলোপাতাড়ি কিল ঘুষি মারে ৪নং আসামী মো:রফিকুল ২নং বাদীর লুঙ্গি টেনে ধরিলে তাহার সাথে থাকা ৩০,০০০( ত্রিশ হাজার টাকা )নিয়ে যায়। ৯নং সাক্ষী তাহার ছেলের মারধরের করিতেছে শুনিয়া ঘটনাস্থলে গেলে ৪নং আসামী তাহার শরীরে বিভিন্ন স্থানে কিল ঘুষি মারিলে নিলা ফুলা জখম হয়।

এই বিষয়ে মো:রফিকুল সরকার দাবি করেন,তিনি ঘটনার দিন ৫ই মার্চ সন্ধ্যার দিকে ঢাকার সাভারস্থ বাংলাদেশ কোরিয়া মৈত্রী হাসপাতাল সংলগ্ন নিউ সুপার ডেন্টাল কেয়ারে ডাক্তার মো:হাফিজুর রহমানের তত্ত্বাবধানে দাতেঁর চিকিৎসা নেই। যার কারণে তিনি সাভারে অবস্থান করছিল। যার সমস্ত তথ্যাদি তাহার কাছে রক্ষিত আছে। তিনি অভিযোগ করেন, এলাকার কুচক্রি মহল আমার শিক্ষা জীবনের ক্ষতি সাধনের উদ্দেশ্যে আমার ও আমার পরিবারের বিরুদ্ধে উঠে পড়ে লেগেছে।

এই সম্পর্কে সাক্ষী মো সোরাব রাডী কে প্রতিবেদক ফোন দিলে বলেন যে, মো:রফিকুল সরকার ঐদিন ঘটনাস্থলে অনুপস্থিত ছিল এবং তাদের মাঝে মারামারি ঘটনা ঘটেছে।

অপর সাক্ষী মো মহন ছৈয়াল কে ফোন দিলে তিনি বলেন যে, ঘটনা সময়ে মো:রফিকুল সরকার উপস্থিত ছিল না, এটা একেবারে মিথ্যা ।

মো:রফিকুল সরকারের পিতা মো:ফারুক সরকারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন,আমাদের হয়রানি করার উদ্দেশ্যে মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। আমরা চরম নিরাপত্তাহীনতা অনুভব করছি। যারা এটা করেছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রশাসনের নিকট অনুরোধ করছি।

এই বিষয়ে বাদী আলমাছ সরকারকে ফোন দিলে তার নাম্বার বন্ধ পাওয়া যায়।

ঘটনা সম্পর্কে তদন্ত কর্মকর্তা এসআই আতিয়ার রহমান বলেন,সর্ব প্রথম আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করবো এবং সত্যতা না পাওয়া গেলে আইনানুগ যথার্থ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

উল্লেখ্য মো:রফিকুল সরকার দৈনিক দিগন্তরের চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি হিসাবে কর্মরত।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© প্রকাশকঃ ট্রাস্ট মিডিয়া হাউস © 2020-2023