May 22, 2024, 4:56 pm
শিরোনাম
বেরোবি ফিল্ম এন্ড আর্ট সোসাইটির নেতৃত্বে সোয়েব ও অর্ণব ইবি রোভার স্কাউটের বার্ষিক তাবুঁবাস ও দীক্ষা অনুষ্ঠান শুরু সেভেন স্টার বাস কাউন্টারের কর্মীদের হামলার শিকার পবিপ্রবির শিক্ষার্থীরা, আহত ৫ শিক্ষার্থীদের জন্য সাংবাদিকতায় বুনিয়াদি প্রশিক্ষণের আয়োজন করলো নোবিপ্রবিসাস ইবি ছাত্রলীগ সহ-সম্পাদকের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি জাবিতে কুরআনের অনুবাদ পাঠ প্রতিযোগিতার পুরুষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত মগের মুল্লুকে পরিণত হয়েছে দেশটা: বিএনপি মহাসচিব ‘চ্যারিটি ফান্ড কেইউ’ এর আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু পবিপ্রবিতে বিশ্বকবির ১৬৩ তম জন্মজয়ন্তী উদযাপন একজন আইনজীবীর প্রথম দায়িত্ব হচ্ছে মানুষের অধিকার রক্ষার জন্য কাজ করা : অ্যাটর্নি জেনারেল

`বার্সায় জন্মেছি, বার্সাতেই মরব’

স্পোর্টস ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : Monday, November 7, 2022,
  • 1 বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

চোখের জলে বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারের ইতি টানতে চলেছেন তারকা ডিফেন্ডার জেরার্ড পিকে। শনিবার রাতে প্রিয় মাঠ ন্যূক্যাম্পে ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচ খেলেছেন ৩৫ বছর বয়সী এই সেন্টার ব্যাক। ২০১৮ সালে স্পেন জাতীয় দল থেকে অবসর নেয়ার পর এতদিন খেলে চলেছিলেন প্রাণের ক্লাব বার্সিলোনার হয়ে। অবশেষে কাতালানদের হয়েও পথচলা শেষ করতে যাচ্ছেন। বিশ্বকাপ বিরতির আগে নিজেদের শেষ ম্যাচে আগামী মঙ্গলবার লা লিগায় ওসাসুনার বিরুদ্ধে খেলবে বার্সা। পেশাদার ক্যারিয়ারে সেদিনই হয়ত শেষবারের মতো মাঠে নামবেন স্পেনের হয়ে ২০১০ বিশ্বকাপ জেতা পিকে। এর আগে পরশু রাতে আলমেরিয়ার বিরুদ্ধে ন্যূক্যাম্পে শেষ ম্যাচটি খেলেছেন পিকে।
ঘরের মাঠে প্রিয় সতীর্থকে জয় দিয়ে বিদায় জানিয়েছেন বার্সা ফুটবলাররা। ওসমানে ডেম্বেলে ও ফ্রেঙ্কি ডি জংয়ের গোলে বার্সা জিতেছে ২-০ ব্যবধানে। এর ফলে আপাতত রিয়াল মাদ্রিদকে টপকে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষেও উঠেছে কাতালানরা। বার্সিলোনার জার্সি গায়ে বিদায়ী ম্যাচে নিয়মিত অধিনায়ক সার্জিও বসকুয়েটসের পরিবর্তে অধিনায়কের আর্মব্যান্ড পড়ে মাঠে নেমেছিলেন পিকে। ম্যাচে যতবারই বল স্পর্শ করেন তিনি ততবারই সমর্থকদের উষ্ণ অভিনন্দনে সিক্ত হন। শেষবারের মতো ক্যাম্প ন্যূতে এই কিংবদন্তিকে সম্মান জানাতে ভুল করেনি দর্শকরা। ম্যাচ শেষে কান্নাভেজা কণ্ঠে পিকে বলেন, ‘অনেক সময় চলে যাওয়ার মধ্যেও ভালবাসা থাকে। আমি নিশ্চিত ভবিষ্যতে এখানে আমি ফিরে আসব। এটা একেবারে চলে যাওয়া নয়। ১৭ বছর পর আমি ক্লাব ছেড়ে চলে যাচ্ছি। আমার দাদা আমাকে ক্লাব সদস্য বানিয়েছিলেন। আমি এখানে জন্ম নিয়েছি, এখানেই মৃত্যুবরণ করতে চাই।’

বার্সিলোনার একাডেমিতে বেড়ে ওঠা পিকে ২০০৪ সালে ইংলিশ ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে যোগ দিয়েছিলেন। সেখানে চার বছর কাটিয়ে ২০০৮ সালে ফেরেন পুরনো ঠিকানায়। এর পর পুরোটা সময় এই বার্সিলোনাতেই। ছয় শতাধিক ম্যাচ খেলে জিতেছেন ৩০টি শিরোপা। আলমেরিয়ার বিরুদ্ধে শুরুর একাদশে থাকা পিকেকে নির্ধারিত সময়ের সাত মিনিট আগে তুলে নেন বার্সা কোচ জাভি হার্নান্দেজ। ওই সময় ৯২ হাজার ৬০৫ দর্শকে ঠাসা ন্যূক্যাম্পে সৃষ্টি হয় আবেগঘন মুহূর্ত। অশ্রুভেজা চোখে প্রায় সব সতীর্থকে এক এক করে জড়িয়ে ধরার পর মাঠ ছাড়েন পিকে। দর্শকরা দাঁড়িয়ে অভিবাদন জানান। ম্যাচের পর পিকেকে শূন্যে ছুঁড়ে উদ্যাপন করে সতীর্থরা।

দর্শক অভিবাদনের জবাব দেন এই সেন্টার ব্যাক। এর পর মাইক্রোফোন হাতে ভক্তদের উদ্দেশে পিকে বলেন, খেলোয়াড় হিসেবে এটা শেষ হলেও বার্সেলোনার সঙ্গে তার সম্পর্ক অটুট থাকবে সবসময়। এক যুগের বেশি সময় ধরে পিকের সঙ্গে বার্সেলোনায় খেলছেন অভিজ্ঞ ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার সার্জিও বসকুয়েট। এতদিনের সতীর্থ চলে যাচ্ছেন, স্বাভাবিকভাবেই মন খারাপ তার। তিনি বলেন, সে চলে যাচ্ছে; রেখে যাচ্ছে তার অবিশ্বাস্য স্মৃতি। বার্সেলোনার হয়ে খেলা তার কাছে অন্য সবকিছুর চেয়ে বেশি অর্থবহ। আমরা তাকে মিস করব।  
বার্সার হয়ে প্রায় দেড় দশকে পিকে খেলেছেন ৬১৬ ম্যাচ। ডিফেন্ডার হয়েও গোল করেছেন ৫২টি। এই সময়ে তিনটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, আটটি লা লিগা, সাতটি কোপা ডেল রে সহ জিতেছেন মোট ৩০টি শিরোপা। ২০১৮ সালে আন্তর্জাতিক ফুটবলকে বিদায় জানানোর আগে স্পেনের হয়ে পিকে ২০১০ বিশ্বকাপ ও ২০১২ ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জয় করেন।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© প্রকাশকঃ ট্রাস্ট মিডিয়া হাউস © 2020-2023