May 20, 2024, 6:57 pm
শিরোনাম
মগের মুল্লুকে পরিণত হয়েছে দেশটা: বিএনপি মহাসচিব ‘চ্যারিটি ফান্ড কেইউ’ এর আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু পবিপ্রবিতে বিশ্বকবির ১৬৩ তম জন্মজয়ন্তী উদযাপন একজন আইনজীবীর প্রথম দায়িত্ব হচ্ছে মানুষের অধিকার রক্ষার জন্য কাজ করা : অ্যাটর্নি জেনারেল জাবিতে ছাত্রলীগ সম্পাদকের বান্ধবীকে নিয়োগ দিতে তোড়জোড় যুক্তিতর্ক দেখে সবাই ভাবতো ভালো প্রতিষ্ঠান থেকে এসেছি : শাহ মনজুরুল হক ইবিতে মুজিব মুর‍্যালে এ্যাটর্নি জেনারেলের শ্রদ্ধা নিবেদন  বাংলাদেশ পুলিশ পেশাদারিত্বের সাথে জনগণের নিরাপত্তা দিয়ে আসছে : আইজিপি ইবি অধ্যাপক ড. ইকবাল হোসাইনের আত্মার মাগফিরাতে দোয়া মাহফিল কানাডার বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রসংসদের সভাপতি হলেন জাবির সাবেক শিক্ষার্থী 

প্রক্টরিয়াল বডির সঙ্গে ‘অসদাচরণ’র অভিযোগে রাবি ছাত্রীকে শোকজ

মোঃ সোহাগ আলী, রাবি প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : Tuesday, September 6, 2022,
  • 0 বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যদের সঙ্গে ‘অসদাচরণ’র অভিযোগে এক ছাত্রীকে কারণ দর্শানোর নোটিশ (শোকজ) দেওয়া হয়েছে।

রবিবার (০৪ সেপ্টেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক আসাবুল হক স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে ওই ছাত্রীকে তিন দিনের মধ্যে কারণ দর্শাতে বলা হয়।

তবে অশোভন আচরণের অভিযোগ অস্বীকার করে ওই ছাত্রীর দাবি, কয়েকজন বন্ধুসহ তিনি আড্ডা দিচ্ছিলেন। এ সময় প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরা এসে তাদের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণ করেন।

শোকজের চিঠিতে বলা হয়েছে, গত ২৭ আগস্ট রাত সাড়ে ১০টার দিকে ওই ছাত্রী অন্ধকারে সাতজন ছেলে ও একজন মেয়ের সঙ্গে বসেছিলেন। ওই সময় প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরা পরিচয় জানতে চাইলে ওই ছাত্রী তাদের সঙ্গে তর্ক ও অসদাচরণ করেন। এছাড়া ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন মানবেন না’, ‘নিজের মতো চলবেন’ বলেন এবং প্রক্টরিয়াল বডিকে ‘যা পারে তা করতে’ বলেন তিনি।

ওই ছাত্রীর এই বক্তব্যকে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনশৃঙ্খলাপরিপন্থী উল্লেখ করে চিঠিতে আরও বলা হয়, এটি প্রচলিত নিয়মের লঙ্ঘন ও দণ্ডনীয় অপরাধ। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা নেওয়া হবে না উল্লেখ করে তিন দিনের মধ্যে জবাব দিতে বলা হয়েছে। অন্যথায় একতরফাভাবে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অভিযুক্ত ছাত্রী বলেন, ‘আমরা কয়েকজন মিলে রাত সাড়ে ৮টার দিকে গান করছিলাম। অথচ কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া ওই চিঠিতে সাড়ে ‌১০টার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। তাছাড়া, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন মানবো না’ বা ‘যা করার করেন’ এমন কোনও কথা বলিনি। বরং প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরাই আমাদের সঙ্গে অশোভন আচরণ করেছেন।’

জানা গেছে, ওই দিন প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যদের মধ্যে টহলে অংশ নেন সহকারী প্রক্টর পুরনজিৎ মহলদার, আব্দুল্লাহ আল মামুন ও হাকিমুল হক।

ওই দিনের ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে সহযোগী প্রক্টর পুরনজিৎ মহলদার বলেন, ‘আমরা রাত ৯টার দিকে ক্যাম্পাসে টহল শুরু করি। সাড়ে ১০টার দিকে আমরা মমতাজ উদ্দীন কলা ভবনের সামনে এসে দেখি, সাত জন ছেলে ও দুই জন মেয়ে বসে আছে। বিদ্যুৎ না থাকায় তখন পুরো এলাকা অন্ধকার ছিল। সাধারণত এ ধরনের গ্রুপগুলোতে বহিরাগতরা থাকে। তাই আমরা ওদের কাছে গিয়ে পরিচয় জানতে চাই। তারা নিজেদের বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বলে জানায়। এ সময় আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইডি কার্ড দেখাতে বললে ওই ছাত্রী বলে, সে কার্ড দিতে বাধ্য নয়।’

সহকারী প্রক্টর আরও বলেন, ‘আমরা তখন ওই ছাত্রীকে হলে থাকে কিনা জিজ্ঞেস করি। সে হলে থাকে বলে জানায়। পরে আমরা ওই ছাত্রীকে রাত অনেক হয়েছে উল্লেখ করে হলে ফিরবে কিনা জানতে চাইলে, ওই ছাত্রী বলে, ‘হলে ফিরবো কি ফিরবো না সেটা আমাদের ব্যাপার। আমাদের ব্যক্তিগত জীবন আছে। আমি বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন মানবো না’।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক আসাবুল হক বলেন, ‘প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যদের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তাকে শোকজ করা হয়েছে। তার জবাবের পরিপ্রেক্ষিতে আমাদের ডিসিপ্লিনারি কমিটি ব্যবস্থা নেবে।’

শিক্ষার্থীরা কোথায় বসবে বা কোথায় বসবে না, এমন কোনও নিয়ম ঠিক করা আছে কিনা—এমন প্রশ্নের জবাবে অধ্যাপক আসাবুল হক বলেন, ‘গভীর রাতে শিক্ষার্থীরা অন্ধকারে আড্ডা দেবে, প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরা তখন পরিচয় জানতে চাইলে অশোভন আচরণ করবে, এমনকি সহকারী প্রক্টরদের চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেবে এমনটা হতে পারে না। তারা এর আগেও এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছে।’

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© প্রকাশকঃ ট্রাস্ট মিডিয়া হাউস © 2020-2023