May 21, 2024, 1:16 pm
শিরোনাম
জাবিতে কুরআনের অনুবাদ পাঠ প্রতিযোগিতার পুরুষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত মগের মুল্লুকে পরিণত হয়েছে দেশটা: বিএনপি মহাসচিব ‘চ্যারিটি ফান্ড কেইউ’ এর আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু পবিপ্রবিতে বিশ্বকবির ১৬৩ তম জন্মজয়ন্তী উদযাপন একজন আইনজীবীর প্রথম দায়িত্ব হচ্ছে মানুষের অধিকার রক্ষার জন্য কাজ করা : অ্যাটর্নি জেনারেল জাবিতে ছাত্রলীগ সম্পাদকের বান্ধবীকে নিয়োগ দিতে তোড়জোড় যুক্তিতর্ক দেখে সবাই ভাবতো ভালো প্রতিষ্ঠান থেকে এসেছি : শাহ মনজুরুল হক ইবিতে মুজিব মুর‍্যালে এ্যাটর্নি জেনারেলের শ্রদ্ধা নিবেদন  বাংলাদেশ পুলিশ পেশাদারিত্বের সাথে জনগণের নিরাপত্তা দিয়ে আসছে : আইজিপি ইবি অধ্যাপক ড. ইকবাল হোসাইনের আত্মার মাগফিরাতে দোয়া মাহফিল

ববির দুই শিক্ষকের ফেসবুকের পোষ্টকে কেন্দ্র করে শিক্ষার্থীদের মিশ্র প্রতিক্রিয়া

ববি প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : Thursday, June 23, 2022,
  • 2 বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (ববি) বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও চেয়ারম্যান সঞ্জয় সরকার ও সহকারী অধ্যাপক উন্মেষ রায়ের বিরুদ্ধে ধর্মীয় উস্কানী ও ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগ আনেন সাধারন শিক্ষার্থীরা। ফেসবুকে তিনি ধর্মীয় উস্কানী দিচ্ছেন বলে অভিযোগ তুলেছেন শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা।

বৃহস্পতিবার (২৩জুন) বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারন শিক্ষার্থীদের পক্ষথেকে উপাচার্য বরাবর একটি অভিযোগপত্র দাখিল করা হয় । অভিযোগপত্রে বলা হয়, বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও চেয়ারম্যান সঞ্জয় সরকার ও সহকারী অধ্যাপক উন্মেষ রায় তাদের ব্যক্তিগত ফেসবুক একাউন্টে ইসলাম ধর্মের মৌলিক বিষয়কে কটাক্ষ করে কুরুচিপূর্ণ ও উস্কানিমূলক স্ট্যাটাস পোস্ট করে। তাদের এমন গর্হিত কাজের প্রেক্ষিতে সাধারণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ ও অসন্তোষের সৃষ্টি করে। যা সাধারণ শিক্ষার্থীদের অসাম্প্রদায়িক চেতনার পরিপন্থি।

শিক্ষার্থীরদের বিভিন্ন ফেসবুক পোস্টে সঞ্জয় সরকারের লেখার প্রতিবাদ করতে দেখা গেছে।

মূলত ধর্মীয় বক্তা শায়খ আহমাদুল্লাহর একটি ফেসবুক পোস্ট “অনুগ্রহ করে এবার বন্যার্তদের জন্য অবৈজ্ঞানিকভাবে ঢাকায় কেউ মোম প্রজ্বালন করবেন না। পারলে সে মোমগুলো দুর্গতদের জন্য পাঠিয়ে দিন।” এটি Jahangirnagar University – Admission Test নামের পেইজ থেকে প্রকাশ করা হলে শিক্ষক সঞ্জয় সরকার উক্ত পোস্ট শেয়ার করে ফেসবুকে লিখেন “আমাদের রন্ধ্রে রন্ধ্রে মৌলবাদ ঢুকিয়ে দেওয়া হচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম দিয়ে পেজ খুলে সেসব প্রচার করা হচ্ছে। এসবের দায় একদিন আমরা কেউ এড়াতে পারবো না।”

বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তত ৩০ জন শিক্ষার্থী জানিয়েছেন ফেসবুকে বিভিন্ন সময় এই দুই শিক্ষকের ধর্মীয় উস্কানিমূলক পোস্টে গঠনমূলক সমালোচনা করলে সেটার রিপ্লাই না দিয়েই আনফ্রেন্ড অথবা ব্লক করে দেন।

আনোয়ার হোসেন মঞ্জু নামের এক শিক্ষার্থী বলেন, সঞ্জয় সরকার স্যারের ক্রমাগত ফেইসবুকে ধর্ম বিদ্বেষের কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে বিভক্তি ও ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। মোমবাতি প্রজ্বলন ও বন্যার্তদের সহযোগিতাকে কেন্দ্র করে আলেমদেরকে মৌলবাদী বলায় তা আরো প্রকট হলো। একজন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক হিসেবে স্যারের কাছ থেকে আমরা এমনটা কখনও আশা করি না।

আইন বিভাগের শিক্ষার্থী রেজা বেপারী বলেন, শান্ত বিশ্ববিদ্যালয়কে অশান্ত করছেন তারা। শিক্ষকতার মত মহান আদর্শকে পুঁজি করে সাম্প্রদায়িক আগুন ছড়িয়ে দিচ্ছেন। তারা আসলে কি চায়? তারা বাম নয়, অসাম্প্রদায়িকও নয় তারা ইসলামবিদ্বেষী সাম্প্রদায়িক।

অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী শাহরিয়ার মিলান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের এই দুজন শিক্ষককের ফেসবুক টাইমলাইন জুড়ে শুধু ধর্মীয় বিদ্বেষই খুঁজে পাওয়া যায়। তারা সবসময়ই ধর্মীয় উস্কানীমূলক লেখা পোস্ট করেন। শিক্ষার্থীদের মধ্যে সাম্প্রদায়িকতা সৃষ্টি করে বিভাজন তৈরি করছেন তারা। যখন গঠনমূলক সমালোচনা করা হয় আনফ্রেন্ড করেন, না হয় পোস্ট ডিলেট করেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বাংলা বিভাগের এক শিক্ষার্থী বলেন, সিলেটে যেখানে ১০ টাকার মোমবাতি ১০০টাকা সেখানে রাস্তায় রাস্তায় মোমবাতি প্রোজ্জ্বলন না করে ওইগুলো সিলেটে পাঠাইলে তারা অন্তত গলা সমান পানিতে রাতের অন্ধকারে একটু আলো দেখতে পাবে। আর এমন আহ্বানে যদি একজন শিক্ষক মৌলবাদ খুঁজে পান সেটা নিশ্চয়ই ইসলাম ধর্মবিদ্বেষী কাজ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিশ্ববিদ্যালয়ের দুজন শিক্ষক জানিয়েছেন যে, শিক্ষক সঞ্জয় সরকার ও উন্মেষ রায় প্রায়ই এমন উষ্কানিমূলক পোস্ট দেওয়ার জন্য তারা এই দুই শিক্ষককে ফেসবুক থেকে আনফলো করে রেখেছেন এবং এই বিষয়টি নিয়ে তারাও বিব্রত।

এ বিষয়ে বাংলা বিভাগের শিক্ষক সঞ্জয় সরকার বলেন, এটা ধর্মীয় বিদ্বেষমূলক কোন কথা না। কেউ যদি বলে থাকে তাহলে সেটা ভুল বুঝেছে। স্টুডেন্টরা কেউ যদি ভুল বুঝে আমাকে কিছু বলে থাকে সেটাতে আমার কোন কথা বলার নেই।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© প্রকাশকঃ ট্রাস্ট মিডিয়া হাউস © 2020-2023