May 19, 2024, 11:58 pm
শিরোনাম
মগের মুল্লুকে পরিণত হয়েছে দেশটা: বিএনপি মহাসচিব ‘চ্যারিটি ফান্ড কেইউ’ এর আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু পবিপ্রবিতে বিশ্বকবির ১৬৩ তম জন্মজয়ন্তী উদযাপন একজন আইনজীবীর প্রথম দায়িত্ব হচ্ছে মানুষের অধিকার রক্ষার জন্য কাজ করা : অ্যাটর্নি জেনারেল জাবিতে ছাত্রলীগ সম্পাদকের বান্ধবীকে নিয়োগ দিতে তোড়জোড় যুক্তিতর্ক দেখে সবাই ভাবতো ভালো প্রতিষ্ঠান থেকে এসেছি : শাহ মনজুরুল হক ইবিতে মুজিব মুর‍্যালে এ্যাটর্নি জেনারেলের শ্রদ্ধা নিবেদন  বাংলাদেশ পুলিশ পেশাদারিত্বের সাথে জনগণের নিরাপত্তা দিয়ে আসছে : আইজিপি ইবি অধ্যাপক ড. ইকবাল হোসাইনের আত্মার মাগফিরাতে দোয়া মাহফিল কানাডার বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রসংসদের সভাপতি হলেন জাবির সাবেক শিক্ষার্থী 

ডিএসএলআর ক্যামেরা কিনে না দেওয়ায় রাবি শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

রাবি প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : Friday, September 24, 2021,
  • 0 বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের এক শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছে। শুক্রবার রাত ৩ টার দিকে নিজ বাড়িতে ফ্যানের সাথে ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করে সে।

ওই শিক্ষার্থীর নাম ইমরুল কায়েস। তার গ্রামের বাড়ি যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার গঙ্গানন্দপুর গ্রামে। সে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী ।

এবিষয়ে ইমরুলের বাবা বলেন,” শুক্রবার রাত ৩ টার দিকে রুমের দরজা বন্ধ করে গলায় ফাঁস দেয় ইমরুল। ঘটনার কিছুদিন আগে মায়ের কাছে মোটর সাইকেল চেয়েছিলো সে। কিনেও দেয়া হয়েছিল সেটা। কিন্তু ঘটনার আগেই সে একটি ডিএসএলআর ক্যামেরা কিনে দিতে বলেছিল। কিন্তু মধ্য রাতে ক্যামেরা কিনতে যাওয়া যাবে না বলে মা তাকে বুঝানোর চেষ্টা করে। কিন্তু এরপর সে রুমের দরজা বন্ধ করে গলায় ফাঁস দেয় । পরে রুমের দরজা ভেঙে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।”

তার সহপাঠীদের সূত্রে জানা যাচ্ছে, ইমরুল মানসিক ভাবে বিপর্যস্ত ছিল। রিহ্যাবিলিটেশন সেন্টারেও ছিল কিছুদিন। এরমধ্যে বিভাগের ভর্তি কার্যক্রম শুরু হলে সহপাঠীদের সাথে কথা বলে ভর্তিও হয়েছে সে।

এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ইমরুলের টাইমলাইনে কয়েকদিন ধরে হতাশা আর আত্মহত্যা নিয়ে পোস্ট করতে দেখা যাচ্ছিল। কয়েকদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘ব্যর্থতা আত্নহত্যার মূল’, এধরনের পোস্ট আর পরিচিত কয়েকজনের সাথে ছবি পোস্ট করছিল সে।

গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সভাপতি মোশতাক আহমেদ বলেন, ”বিষয়টি আমি ফেসবুকের মাধ্যমে জানতে
পেরেছি। তার পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করছি। তার পরিবারের প্রতি শোক ও সমবেদনা জ্ঞাপন করছি। এই ধরনের মানসিক হতাশা থেকে শিক্ষার্থীদের বের করে আনতে তাদের নিয়ে বসা, ক্লাস করা উচিত বলে যোগ করেন তিনি।”

তবে এ বিষয়ে জানতে যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলা পুলিশ স্টেশনে একাধিকবার ফোন করেও কথা বলা সম্ভব হয়নি।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© প্রকাশকঃ ট্রাস্ট মিডিয়া হাউস © 2020-2023