May 22, 2024, 8:32 pm
শিরোনাম
বেরোবি ফিল্ম এন্ড আর্ট সোসাইটির নেতৃত্বে সোয়েব ও অর্ণব ইবি রোভার স্কাউটের বার্ষিক তাবুঁবাস ও দীক্ষা অনুষ্ঠান শুরু সেভেন স্টার বাস কাউন্টারের কর্মীদের হামলার শিকার পবিপ্রবির শিক্ষার্থীরা, আহত ৫ শিক্ষার্থীদের জন্য সাংবাদিকতায় বুনিয়াদি প্রশিক্ষণের আয়োজন করলো নোবিপ্রবিসাস ইবি ছাত্রলীগ সহ-সম্পাদকের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি জাবিতে কুরআনের অনুবাদ পাঠ প্রতিযোগিতার পুরুষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত মগের মুল্লুকে পরিণত হয়েছে দেশটা: বিএনপি মহাসচিব ‘চ্যারিটি ফান্ড কেইউ’ এর আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু পবিপ্রবিতে বিশ্বকবির ১৬৩ তম জন্মজয়ন্তী উদযাপন একজন আইনজীবীর প্রথম দায়িত্ব হচ্ছে মানুষের অধিকার রক্ষার জন্য কাজ করা : অ্যাটর্নি জেনারেল

না ফেরার দেশে গবি শিক্ষার্থী লিজু

সুপর্ণা রহমান, গবি প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : Wednesday, August 18, 2021,
  • 0 বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী ফাহিমা আক্তার লিজু
ব্লাড ক্যান্সারের কাছে হেরে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন। ৩ মাস ধরে তিনি রাজধানীর পিজি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ছিলেন৷

মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টা ২০ মিনিটে তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকেরা৷ পরে রাত ১টায় লিজুর মরদেহ জন্মস্থান হবিগঞ্জ সদরের উত্তর নোয়াপাড়া গ্রামে নেওয়া হয়। সকাল ১০টায় জানাজা শেষে মরদেহ দাফন করা হয়৷

লিজু গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেটেরিনারি এন্ড এনিমেল সাইন্সেস অনুষদের ৩য় ব্যাচের মেধাবী ছাত্রী।

লিজুর একাধিক সহপাঠী বলেন, ‘শুরু থেকেই আমরা তাকে একজন ধার্মিক মেয়ে হিসেবে পেয়েছি। নিয়মিত পর্দা করতো, নামাজ পড়তো। পড়ালেখায় দারুণ মেধাবী ছিল। কারো সাথে অহেতুক ঝামেলায় যেত না। আমরা তার এমন মৃত্যুতে অত্যন্ত শোকাহত।’

ভেটেরিনারি অনুষদের এনিমেল প্রোডাকশন বিভাগের প্রধান ডা: মো. আব্দুর রহমান বলেন, ‘সৎ সাহসিকতা এবং পরিশ্রমী মেয়ে ছিল লিজু। একজন মেধাবী স্টুডেন্টের মধ্যে যা থাকা দরকার, তার মধ্যে প্রত্যেকটা গুণাবলিই বিদ্যমান ছিল। লিজু একজন মেয়ে হয়েও একজন ভেটেনারিয়ান হিসেবে নিজেকে তৈরি করছিল। আমরা তাকে নিয়ে সবাই আশাবাদী ছিলাম।’

তিনি আরও বলেন, ‘লিজুর একাডেমিক রেজাল্টও গতানুগতিকভাবে ভাল ছিল। আমরা একজন ব্রিলিয়ান্ট এন্ড মোর অথিমিস্টিক ছাত্রীকে হারিয়ে ফেললাম। ভেটেরিনারি এন্ড এনিমেল সাইন্সেস ফ্যাকাল্টির প্রত্যেক শিক্ষকই তার ব্যাপারে যথেষ্ট পজিটিভ এবং আন্তরিক ছিল। শুধু শিক্ষকরাই নয়! লিজুর বন্ধু-সহপাঠী, জুনিয়র এবং সিনিয়র যারা আছে, যারা লিজুকে সরাসরি দেখেছে ও পেয়েছে। আমার মনে হয়- প্রত্যেকেই একটি কথা বলবে।’

লিজুর পরিবার ও স্বজনেরা জানান, ‘লিজুকে বাঁচাতে অনেক অর্থের প্রয়োজন ছিল৷ তাকে বাঁচাতে অনেকেই এগিয়ে এসেছেন। সহযোগিতা করেছেন। তবুও লিজুকে বাঁচানো গেল না৷ ৩ মাস ধরে ঢাকার পিজি হাসপাতালে মৃত্যু সাথে যুদ্ধ করেছে লিজু।’

তারা আরও বলেন, ‘৩ মাসে তার চিকিৎসা ব্যয় হয়েছে ৮ লক্ষ টাকার বেশি৷ লিজুর বিশ্ববিদ্যালয়, অনুষদ ও আত্মীয় স্বজন মিলে এই অর্থ যোগাড় করা হয়। সবাই লিজু জন্য দোয়া করবেন।’

প্রক্টর ক্যাপ্টেন (অবঃ) ড. মো. জিয়াউল আহসান বলেন, ‘লিজুর মৃত্যু একটি মর্মান্তিক ঘটনা। লিজুর মৃত্যু তাঁর পরিবারের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি। তার শোকসন্তপ্ত পরিবারকে আমরা গভীর সমবেদনা জানাই।’

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© প্রকাশকঃ ট্রাস্ট মিডিয়া হাউস © 2020-2023